সুশান্তের বাবার যুক্তি গ্রহন করল না দিল্লি হাইকোর্ট, বিস্তারিত জানুন

বড় পর্দায় প্রয়াত ছেলেকে নিয়ে কাটাছেঁড়া হোক, এমনটা চাননি সুশান্ত সিংহ রাজপুতের বাবা কে কে সিংহ। গত এপ্রিল মাসে তাই দিল্লি হাইকোর্টের কাছে সুশান্তের জীবনী চিত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করার আবেদন জানিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু সুশান্তের বাবার এই আবেদন খারিজ করে দিলেন দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি সঞ্জীব নারুলা।

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকেই তাঁর জীবন নিয়ে ছবি তৈরির পরিকল্পনা করেছেন অনেকেই। ‘ন্যায়: দ্য জাস্টিস’, ‘সুইসাইড অর মার্ডার: আ স্টার ওয়াজ লস্ট’, ‘শশাঙ্ক’— এমন বেশ কিছু ছবির চিত্রনাট্যও লেখা হয়েছিল বলে গুঞ্জন বলিপাড়ায়। তারই ভিত্তিতে নির্মাতাদের একটি নোটিস পাঠানো হয়েছিল সুশান্তের পরিবারের তরফ থেকে।

আরও পড়ুন-মুকুলের তৃণমূলে ফেরা নিয়ে জল্পনা অবসান,বড়সড় ইঙ্গিত দিলেন সৌগত

যেখানেবলা হয়, ছবি তৈরির নামে অভিনেতা বা তাঁর পরিবারের কোনও ব্যক্তিগত তথ্য প্রকাশ করা যাবে না। এতে তাঁদের গোপনীয়তা বজায় রাখার মৌলিক অধিকার লঙ্ঘিত হবে। সুশান্তের উত্তরসূরীদের অনুমতি ছাড়া তাই কোনও ছবিই বানানো যাবে না। তবে শেষমেশ এই যুক্তিকে গ্রাহ্য করল না দিল্লি হাইকোর্ট।

আরও পড়ুন-সৌমিত্রকে তৃণমূলে আসার জন্য আহ্বান জানালেন স্ত্রী সুজাতা মন্ডল

প্রযোজক এবং পরিচালক পক্ষের আইনজীবী এ পি সিংহ আদালতের এই সিদ্ধান্তে উচ্ছ্বসিত। তাঁর কথায়, “আমাদের কাছে আদালতের এই পদক্ষেপ খুবই আনন্দের। আজ আমরা জিতেছি। এই জয় শুধু আমার নয়। যে প্রযোজক এবং পরিচালকরা সমাজকে সঠিক পথ দেখানোর জন্য ছবিগুলি তৈরি করেছেন, এই জয় তাঁদের সকলের।”