বিজেপি ছাড়ছেন মুকুল রায়? বললেন যন্ত্রনায় জ্বলছি

BJP-র সঙ্গে মুকুল রায়ের (Mukul Roy) সম্পর্ক ছিন্ন হওয়া নিয়ে কি স্রেফ সময়ের অপেক্ষা? মঙ্গলবার হেস্টিংসে দিলীপ ঘোষের ডাকা BJP-র বৈঠকে মুকুল রায়ের (Mukul Roy) গরহাজিরা সেই জল্পনা আরও উস্কে দিল। শুধু তাই নয়, এই বৈঠকের বিষয়ে তাঁকে কিছু জানানোই হয়নি বলে দাবি করেছেন মুকুল। সূত্রের খবর, মুকুল বলেছেন, ‘আমি এখন আর এসবের মধ্যে নেই। নিজের যন্ত্রণায় জ্বলছি’। মুকুল রায়ের এই বক্তব্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহলের একাংশ। বর্তমানে BJP সর্বভারতীয় সহ সভাপতি পদে রয়েছেন মুকুল। তাঁর মতো পদাধিকারীর BJP-র বৈঠকে না থাকা নিয়ে জল্পনা আরও জোরালো হল।

অন্যদিকে, দিলীপ ঘোষের সঙ্গে মুকুল রায়ের সম্পর্ক কার্যত তলানিতে। BJP-তে নাম লেখানো ইস্তক মুকুল রায়ের সঙ্গে সে ভাবে বনিবনা হয়নি দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের। বিধানসভা ভোটে ভরাডুবির পর দু’জনের সেই দূরত্ব আরও বেড়েছে বলেই দলের অন্দরের খবর। ২ মে-র পর দিলীপ ঘোষের ডাকে বিজেপির যে ক’টি ভার্চুয়াল বৈঠক এখন পর্যন্ত হয়েছে, তার একটিতেও দেখা যায়নি মুকুলকে। এর মধ্যে মুকুলের স্ত্রী কৃষ্ণা রায়ের অসুস্থতাকে কেন্দ্র করে দুই বিজেপি নেতার সম্পর্কের ফাটল রীতিমতো প্রকাশ্যে এসে গেল। যা ধামাচাপা দেওয়ার বদলে দিলীপ নিজেই তাতে ইন্ধন জোগালেন।

আরও পড়ুন-বাবার মাথায় হাত, রামদেবের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিল প্রতিবেশী দেশ নেপাল

১৪ মে কোভিডে আক্রান্ত হন মুকুল-জায়া। ভর্তি হন ইএম বাইপাসের ধারে একটি বেসরকারি হাসপাতালে। করোনামুক্ত হলেও আপাতত বেশ কিছু শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন তিনি। বুধবার তাঁকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন যুব তৃণমূল সভাপতি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এর ঘণ্টাখানেক পরেই হাসপাতালে ছুটে আসেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। কিন্তু এতে কিছুটা বিরক্তিই প্রকাশ করে মুকুল শিবির।

আরও পড়ুন-শীতলকুচিকাণ্ডে পুলিসের হাতে চাঞ্চল্যকর তথ্য,ইতিমধ্যেই ফরেনসিক টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছে গিয়েছে  

মুকুল রায় নিজেও ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাঁর স্ত্রীকে দিলীপের দেখতে আসার ঘটনাকে কোনও গুরুত্বই তিনি দিচ্ছেন না। মুকুলের কথায়, ‘উনি আমাকে বা অন্য কাউকে বলে তো হাসপাতালে যাননি। কাকে দেখতে গিয়েছিলেন তা-ও জানি না।’ মুকুল-ঘনিষ্ঠ এক বিজেপি নেতার কথায়, ‘অভিষেক হাসপাতালে আসার পর অনেক বিজেপি নেতার ঘুম ভেঙেছে। তার আগে কেউ খোঁজও নেননি, মুকুলদার স্ত্রী কেমন আছেন!’ যেমন, শুক্রবার সন্ধ্যায় বিজেপি নেত্রী লকেট চট্টোপাধ্যায় হাসপাতালে গিয়ে মুকুল-জায়ার খোঁজ নিয়ে এসেছেন। বিজেপির রাজ্য নেতারা কেউ যে এত দিন তাঁর স্ত্রীর খোঁজ নেননি, সে বিষয়ে ঘনিষ্ঠদের কাছে একাধিকবার উষ্মা প্রকাশ করেছেন মুকুল।

এদিন বিতর্ক আরও উস্কে দিয়েছেন দিলীপ নিজেই। মুকুলের উপেক্ষায় বেজায় চটেছেন তিনি। দিলীপের মতে, হাসপাতালে যিনি রোগীকে দেখতে গিয়েছিলেন, তাঁকে ধন্যবাদ জানানো উচিত। তাঁর কথায়, ‘করোনা রোগীকে কেউ হাসপাতালে দেখতে যায় না। গত বছর আমিও করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলাম। কেউ দেখতে আসেনি। এটাই স্বাভাবিক।’ দিলীপের প্রশ্ন, ‘কাউকে হাসপাতালে দেখতে যাওয়া কি দোষের? এতে দূরত্ব তৈরি হবে কেন! তা ছাড়া, হাসপাতালে যাওয়ার জন্য কাউকে জিজ্ঞাসা করার কী আছে?’

আরও পড়ুন-দিলীপ – শুভেন্দু জোর টক্কর, দিল্লতে নাড্ডার সঙ্গে বৈঠক শুভেন্দুর

এদিকে, BJP-র সমালোচনা করে সম্প্রতি মমতা ও অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের দরাজ প্রশংসা করলেন শুভ্রাংশু রায়। মুকুল-পুত্রের এই বক্তব্য সামনে আসতেই তাঁদের তৃণমূলে ফেরার জল্পনা দানা বাঁধে। যদিও প্রকাশ্যে কেউই এ ব্যাপারে সরাসরি কোনও মন্তব্য করতে চাননি।