নিজামুদ্দিনে ২৫ মার্চ লক ডাউনে বন্দি যাত্রীদের বাড়ি ফেরতের ব্যবস্থা করেনি প্রশাসন! চাঞ্চল্য তথ্য

নিজামুদ্দিন মারকাজের মাওলানা ইউসুফ সাহেব ২৫ মার্চ ২০২০ প্রশাসনকে চিঠি লিখে জানিয়েছিলেন যে, এখন পর্যন্ত ১৫০০ জনকে তাদের বাড়ি ফেরত পাঠানো হয়েছে। হঠাৎ করে লক ডাউন ঘোষণা করে দেওয়ায় এখনও ১০০০ জন ওখানে আটকে আছে। এদের ফিরে যাবার জন্য দিল্লি পুলিশকে যাত্রী পাস দেওয়ার তিনি অনুরোধ করেন৷ কিন্তু দিল্লি পুলিশ এখনো পর্যন্ত ওদের ফিরে যাবার ব্যবস্থা করেনি।

 

ইতিমধ্যে সেই চিঠি প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই তেমনই তথ্য উঠে এসেছে, গত ২৫ শে মার্চ মারকাজ কতৃপক্ষ থেকে নিজামুদ্দিন লোকাল পুলিশ স্টেশনের S.H.O. কে জানানো হয়েছে যে ২৩ শে মার্চ ১৫০০ জনের বেশি তারা খালি করেছে এবং এখনো সেখানে বিভিন্ন রাজ্য থেকে ১০০০ জনের বেশি জমায়েত আছে। তাদেরকে নিজ নিজ স্থানে যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পৌঁছে দেওয়া যায় তার জন্য S.H.O. এর কাছে গাড়ির সাহায্য চাওয়া হয়েছে এবং জানানো হয়েছে যে তারা সব রকম নির্দেশনা মানতে প্রস্তুত।

দিল্লির নিজামুদ্দিনে যেটা হয়েছে নিঃসন্দেহে খুব খারাপ কাজ, তাতে দেশের মানুষই ক্ষতিগ্রস্ত হবে। সরকার আইন অনুযায়ী সঠিক ব্যাবস্থা নেবেন আশা করি।

তেলেঙ্গানা, কাশ্মির, আন্দামান নিকোবর, পশ্চিমবঙ্গ, অন্ধ্রপ্রদেশ থেকে ৩৬৯ জন ইত্যাদি রাজ্য থেকে সেখানে উপস্থিত ছিল। মারকাজ কতৃপক্ষ জানিয়েছে যে হঠাৎ ট্রেন বন্ধ হয়ে যাওয়াই তারা সেখানেই আটকে যায়।

নিজামুদ্দিন লোকাল পুলিশ স্টেশনের S.H.O কে যখন ২৫শে মার্চ তাদের সমস্যা টা জানানো হয়েছিলো তখন কি পুলিশের উচিত ছিলো না যত তাড়াতাড়ি সম্ভব জায়গা খালি করে দেওয়া এবং খালি করার জন্য সব রকমের ব্যবস্থা নেওয়া??
সে ব্যাপারে প্রশাসনের কোনো হেলদল ছিলোনা,