নারদা মমলা নিয়ে বড় খবর, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ

আগামী ২৯ জুন পর্যন্ত নারদ মামলার শুনানি পিছিয়ে দিল হাই কোর্ট। কলকাতা হাই কোর্টের নির্দেশকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে আগেই সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী শুক্রবার অর্থাৎ ২৫ জুন শীর্ষ আদালতের অবসরকালীন বেঞ্চে ওই মামলার শুনানি। তাই ওই দিন পর্যন্ত হাই কোর্টে নারদ মামলার শুনানি আপাতত স্থগিত রাখার অনুরোধ করেছিল শীর্ষ আদালত। তার পর বুধবার উচ্চ আদালতে ওঠে মামলাটি।

উচ্চ আদালতের বৃহত্তর বেঞ্চে বুধবার নারদ মামলার শুনানি হয়নি। তা পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। সুপ্রিম কোর্ট অবশ্য হাই কোর্টকে ওই মামলা ২৫ জুন পর্যন্ত শুনানি না করার অনুরোধ করেছিল। তা মেনেই বুধবার ওই মামলার শুনানি পিছিয়ে যায়।

আরও পড়ুন-তৃতীয় বা চতুর্থ ফ্রন্ট বিজেপি-কে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিতে পারবে না বলে মনে করেন ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোর

নারদ মামলায় আগেই পার্টি করা হয়েছিল মুখ্যমন্ত্রীকে। তা ছাড়া আইনমন্ত্রী মলয় ঘটককেও ওই মামলায় পার্টি করা হয়। তবে সে সময় তাঁদের তরফে পৃথক ভাবে হলফনামা জমা দেওয়া হয়নি আদালতে। গত ১৭ মে নারদ-কাণ্ডে গ্রেফতার হন রাজ্যের ৪ নেতা-মন্ত্রী। ওই মামলা নিয়ে গত ৯ জুন মুখ্যমন্ত্রী এবং আইনমন্ত্রী উচ্চ আদালতে হলফনামা জমা দিতে গেলে তা খারিজ হয়ে যায়।

আরও পড়ুন-অযোধ্যার জমি বিতর্ক নিয়ে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কোপে পড়তে হল এক সাংবাদিককে

যদিওরাজ্যের অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত আদালতকে জানান, হাই কোর্টের নিয়ম অনুসারে কোনও মামলার ৪ সপ্তাহের মধ্যে হলফনামা জমা দেওয়া যায়। কিন্তু ওই যুক্তি বিচারপতিরা গ্রহণ করেননি। এর পরেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হন মমতা।