অযোধ্যার জমি বিতর্ক নিয়ে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কোপে পড়তে হল এক সাংবাদিককে

অযোধ্যার জমি বিতর্ক নিয়ে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের কোপে পড়তে হল এক সাংবাদিককে। ওই সাংবাদিক এবং বিজনৌর জেলার অপর দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৫টি ধারা এবং তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৩টি ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিশ। রামমন্দির ট্রাস্ট্রের সচিব এবং বিশ্ব হিন্দু পরিষদ নেতা চম্পত রাইয়ের ভাই সঞ্জয় বনসলের অভিযোগের ভিত্তিতে এই মামলাগুলি দায়ের হয়েছে। এফআইআর রিপোর্টে উল্লেখ থাকা ওই সাংবাদিকের নাম বিনীত নারাইন। অপর দুই ব্যক্তি হলেন অলকা লোহাতি এবং রজনীশ।

অযোধ্যা নিয়ে এই বিতর্কের মধ্যেই বিজনৌরে জমি দখলের অভিযোগ উঠেছিল চম্পত রাইয়ের ভাইদের বিরুদ্ধে। সম্প্রতি সাংবাদিক বিনীত নারায়ণ সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিযোগ আনেন, অলকা লোহাটির গোশালার ২০ হাজার বর্গমিটার জমি দখল করতে ভাইদের সাহায্য করেছেন রামমন্দির ট্রাস্টের সচিব চম্পত রাই।

আরও পড়ুন-বিবকে তীব্র কটাক্ষ করলেন শুভেন্দু অধিকারী, পাল্টা জবাব দিতে ছাড়েননি ববিও

যোগী আদিত্যনাথের পুলিশ ওই সাংবাদিক-সহ ৩ জনের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ও ধর্মীয় ভাবনায় আঘাত দেওয়ার অভিযোগ এনে এফআইআর করেছে। চম্পতের ভাই সঞ্জয় বনশলের অভিযোগের ভিত্তিতে এফআইআর হয়েছে। বিজনৌর পুলিশ প্রধানের দাবি, প্রাথমিক তদন্তে তাঁরা দেখেছেন, চম্পত ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে অভিযোগ ভিত্তিহীন।

আরও পড়ুন-মুকুল দল ত্যাগ করতেই ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গেলেন দিলীপ ঘোষ

প্রসঙ্গত, এই জমি মালিকের থেকে ২ কোটি টাকায় কিনেছিলেন এক ব্যবসায়ী। তার ১০ মিনিট পর সেই জমি রামমন্দির ট্রাস্ট ১৮ কোটি টাকায় কিনেছিল বলে অভিযোগ ওঠে। বিনীত বিষয়টি সামনে আনার পর প্রবল বিতর্ক শুরু হয়।